১৩ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৩০শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
ভাঙা সেতুতে দুর্ঘটনার আশঙ্কা
প্রকাশিত : ডিসেম্বর ৩০, ২০২০ ৪:৩৭ পূর্বাহ্ণ
আপডেট : October 05, 2020 8:47 pm

বেইলি সেতুটি অনেক পুরোনো। পাটাতনগুলো হয়ে পড়েছে জরাজীর্ণ। তবুও সেটির ওপর দিয়ে চলে ভারী যানবাহন। মাঝেমধ্যেই খুলে যায় পাটাতন। তখন তড়িঘড়ি করে কোনোরকমে পাটাতন জোড়াতালি দিয়ে দায়মুক্ত হয় কর্তৃপক্ষ। কিছুদিন যেতে না যেতেই আবারও পাটাতন খুলে যাওয়ার পরিস্থিতি তৈরি হয়।

সম্প্রতি সেতুটির উত্তর পাশে দু-একটি পাটাতনে ফাটল দেখা দিয়েছে। ফলে পথচারীরা একটু বেখেয়ালি হলেই ভাঙা পাটাতনে পা ঢুকে আহত হচ্ছেন। মোটরসাইকেল, ইজিবাইকসহ যানবাহনের চাকা ভাঙা পাটাতনে পড়ে দুর্ঘটনা ঘটছে। সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলার সেলবরষ ও পাইকুরাটি ইউনিয়নের মধ্যবর্তী মনাই নদীর ওপর সেতুটির অবস্থান। দুর্ঘটনা এড়াতে নেত্রকোনা সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের (সওজ) অধীন সেতুটির সংস্কার দাবি করেছেন এলাকাবাসী।

ধর্মপাশা উপজেলায় সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের যাবতীয় কার্যক্রম সুনামগঞ্জ সওজের অধীনে ছিল। কিন্তু ২০১৫ সালের ১১ আগস্ট ধর্মপাশা উপজেলায় সওজের যাবতীয় কার্যক্রম নেত্রকোনা সওজ অধিদপ্তরের কাছে স্থানান্তর হয়। তখন থেকে ধর্মপাশা উপজেলা সওজের যাবতীয় কার্যক্রম নেত্রকোনা সওজের অধীনে পরিচালিত হচ্ছে।

সেলবরষ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা নূর হোসেন বলেন, ‘জরুরি ভিত্তিতে সেতুটি সংস্কার করা না হলে যে কোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।’

ধর্মপাশা উপজেলা চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হোসেন রোকন বলেন, সেতুটি সংস্কারের ব্যাপারে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্নিষ্টদের সঙ্গে কথা বলব। নেত্রকোনা সওজের নির্বাহী প্রকৌশলী হামিদুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি আমাদের মনিটরিংয়ে রয়েছে। এখানে কংক্রিটের সেতু করা যায় কিনা, সে ব্যাপারে পরিকল্পনা করা হচ্ছে।